Translate

Sunday, December 6, 2020

প্রতীক্ষিত ইউটিউব মনিটাইজেশন আবারো চালূ হলো।


 হঠাৎ করে কয়েকদিন আগে বা মাস কয়েক আগে ইউটিউবের মনিটাইজেশনের আবেদন বাংলাদেশ থেকে বন্ধ হয়ে গেছিলো। ইউএসএ নির্বাচনের টেকিনক কিনা কে জানে? কাল বাদে পরশু ইউএসএ  ইলেকশনের ইলেকটোরাল কলেজ ভোট ফাইনালাইজেশণ; ঠিক এই মূহুর্তে আবার মনিটাইজেশণ বাংলাদেশে চালু হলো যদিও বাংলাদেশীদের ইউএসএ ইলেকশনে কোন অবদান নাই। বাংলাদেশীরা বাংলাদেশের ভোটার। বাংলাদেশের ভোটে তাদের অবদান আছে। যাই হোক:  মনিটাইজেশন বাংলাদেশের ইন্টারনেট ইউজার দের জন্য অনকে বড় সুখবর। যদি ও এইখানে একটা হাফ হাফ রেটিও আছে। বাংলাদেশে ইউটিউবের যে জোয়ার তাতে দেখা যায় যে: এমন কোন মানুষ নাই যে: তারা ইউটিউবে মনিটাইজেশন এর জণ্য চেষ্টা করতাছে না। এতো পরিমান ভালোবাসা বাংলাদেশীদের ইউটিউবের প্রতি বা গুগলের প্রতি তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। ইউটিউবের মনিটাইজেশণ প্রোগ্রাম হইতাছে ইউটিউব রেভিনিউ শেয়ার প্রোগ্রাম। আপনি যা উপার্জন করবেন তাতে ইউটিউব ৫০% নিয়ে যাবে। বাকী ৫০% দেখাবে আপনার সাইডে। তাহলে আপনি ইউটিউব কে এতো পরিমান ভালোবাসেন যে: নিজের ঘাটের পয়সা খরচ করে ভিডিও তৈরী করে সেখানে মনিটাইজেশণ আবেদন করে ইউটিউব কে ৫০% দিয়ে তারপরে আপনি আপনার চ্যানেল থেকে ডলার উপার্জন করে যাইতাছেন। অথচ আপনি জানেন ই না ইউটিউবের মালিক কে? গুগলে সার্চ দিলে দেখা যায় ইউটিউবের মালিক: Google. 


আমার এই ব্লগে কন্টেন্ট মনিটাইজেশণ চালূ আছে। কন্টেন্ট মনিটাইজেশনের ব্যাপারে একটা বিষয় এইখানে উল্লেখ করা দরকার: 
  • এইখানে আপনি ১০০% বেনিফিটেই পাবেন। ইভেণ ১০০০ ইমপ্রেশনের যে ভ্যালূ সেটাও আপনার একাউন্টে এড হবে। 
  • কন্টেন্ট মনিটাইজেশনে আপনি যা উপার্জন করবেন সবই আপনার একাউন্টে আইসা জমা হবে। 




কথা প্রসংগে বলতে হয়: আপনার একাউন্টে যতো পরিমান ডলার আসবে যদি আপনি ইউটিউবার হোন আর যদি আপনি চিন্তা করে থাকেন যে: গুগলকে আকাশ সম উচ্চতায় তুলে আপনি একেবারে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হয়ে যাবেন ব্যাপারটা ভুল বা মিথ্যা। যুক্তরাষ্ট্রের স্মরনকালের ভয়াবহ ইমিগ্রেশন ণীতি অবলম্বন করবে কারন তাদের বিগত কয়েকশো বছর  এতো বড় হথ্যাযজ্ঞ চলে নাই যা এখন চলতাছে - প্রতিদিন ১২০০-১৫০০ লোক মারা যাইতাছে পেনডেমিকের এ্যাকশনে। কয়েবছল আগে একটি কানাঘুষা শুনেছিলাম যে: একাসথে ১২ লক্ষ লোক নাকি যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্বের জণ্য আবেদন করেছিলো সাউথ ইষ্ট এশিয়ার দেশগুলো থেকে। সেখান থেকে সেই ডাটা যুক্তরাষ্ট্রের সরকার কালেকশন করে সম্ববত তাদের সবাইকে রিজেক্ট করে দিয়েছে  বলে শুনেছি। সোশাল মিডিয়া তে যারা টাকা পয়সা লেনাদেনা করে বা চায় মানুষের কাছে বা যদি এডাল্ট বিহেভিয়ার করে তাহলেও তারা রিজেক্ট হবে। এককথায় বলা যায়: পেনডেমিক শেষ হবার পরে যুক্তরাষ্ট্র আর নতুন করে কোন লোককে নাগরিকত্ব দিবে না স্বাস্থ্য যুকি বা রিস্ক থ্রেড হিসাবে। সেই হিসাবে আপনি যে না জেনে ইউটিউব কে এতো পরিমান বেনিফিট দিতাচেণ- আপনি তো আপনার নিজের দেশকে সেই পরিমান বেনিফিট দিতাছেণ না। আপনার নিজের দেশকে যদি এতো পরিমান ভালোবাসতেন তাহলে বাংলাদেশ আজকে অনেক ভালো অবস্থানে থাকতো। 


এই ইউটিউব মনিটাইজেশনে আপনি যদি খুবই ভালো করতে চান তাহলে লাম ছাম পদ্বতি বাদ দিয়ে খুব সহজ সরল কিছু টেকনিক অবণম্বন কররে আমার মনে হয় আপনি অনেক ভালো করতে পারবেন: 

  • এমন ভাবে ভিডিও তৈরী করতে হবে  যেটা দেখতে কম এমবি লাগে। কারন একটা পোষ্ট পড়তে এক এমবি লাগে কিন্তু একটা ভিডিও দেখতে ১০০-৩০০ মেগাবাইট লাগতে পারে। 
  • ইউটিউব  যে সকল ক্যামেরা কে রেফার করে সেগুলো ই ব্যবহার করতে হবে। 
  • আপনার ভিডিও এর আয়তন যতো কম হবে আপনি ততো বেশী ভিজিটর বা ভিউয়ার পাবেন। 
  • আপনার ভিডিও যেনো অন্যকোন খানে থেকে কপি পেষ্ট না হয়। নিজস্ব স্বকীয়তা বজায় রাখতে হবে। 
  • আপনার ভিডিও তে যেনো কোন ধরনের কপিরাইট ইস্যু না থাকে। সেটা হইতাছে আপনি অণ্য কোন ওয়েসা্েটের লিংক ডেসক্রিপশনে দেবার ক্ষেত্রে সাবধান। 
  • আপনি কখনো অন্য কারো ভিডিও এর লোগো চুরি করবেন না। আপনি যদি লোগো স্ক্রিনশট রেকর্ড করেন তাহরে সমস্যা নাই। কিন্তু আপনি যদি সরাসরি কপি করেন তাহলে এমবেড কোড বা ব্যাকগ্রাউন্ডে যে কোড থাকে তার মাধ্যমে ইউটিউব জানতে পারবে যে আপনি কোথা থেকে লোগো কপি করেছেন। 
  • আপনি কোন ধরনের রেফারেল বা রেফারেন্স মেথয ব্যভহার করবেন না ভিউজ জেনারেট করবেন না। আপনার কাছে আসা এড সবচেয়ে বেশী কার্যকর হবে যখন আপনি আপনার চ্যানেল সহ সত থাকবেন। মনে রাখবেন যে: ইউটিউব আপনার চেয়ে অনেক বেশী চালাক। 
  • সবচেয়ে বড় ব্যাপার ভিডিওতে যেনো ভিউজ আসে। বার বার যেনো ভিউয়ার আপনার চ্যানেলে চোখ বুলায়।
  • একটা ভিডিও দেখলে যেনো সে পরবর্তী ভিডিও টা এগারলি দেখতে চায়। 
  • ভিডিও তে থাম্বনেইল, আই বাটন এবং কার্ড পুরেপুরি একিটভেট করা। মনে রাখবেন যে ভিডিও তে এই অপশন গুলো থাকে সেগুলোকে ইউটিউব আগে প্রমোট করে। 
 





No comments:

Post a Comment

Thanks for your comment. After review it will be publish on our website.

#masudbcl

Marketplace English Tutorial. Freelancing.Outsourcing.

Create Email Accounts with Bluehost Server. Create Email for unique doma...

#bluehost #emailaccounts #bluehostdomian #bluehostdomians