Translate

Tuesday, November 10, 2020

ওয়েবসাইট স্কেচ এবং ডিজাইন বলতে কি বোঝেন?



আপনি যখণ কোন ওয়েবসাইট তৈরী করবেন তখন সেটাকে প্রথমে স্কেচ করতে হবে। স্কেচ মানে হইতাছে একটা কাগজ কলম নিয়ে বসা এবং ওয়েবসাইট টা নিয়ে ডিটেইলস পরিকল্পনা করা। 
  • কি কারনে ওয়েবসাইট টা বানানো হইতাছে?
  • কিভাবে ওয়েবসাইট টা বানানো হবে?
  • ওয়েবসাইট টা কার কার জন্য উপকারী হবে?
  • ওয়েবসাইট টা কিসের জন্য বানানো হইতাছে?
  • ওয়েবসাইট টাতে কিসের জন্য কন্টেন্ট দেওয়া হইতাছে?
  • ওয়েবসাইট টা কতো বছরের জন্য বানানো হইতাছে?
  • ওয়েবসাইটের উদ্দেশ্য বা স্বার্থকতা কোথায়? 
  • ওয়েবসাইটের ডোমেইন + হোস্টিং + ডিজাইন + ডেভেলেপমেন্ট + প্রেস + হোয়াইট হ্যাট এসইও কিভাবে হবে? 
এই বিষয়গুলো নিয়ে আপনাকে একটা পেপারওয়ার্ক করতে হবে। পেপারওয়ার্ক শেষ হবার পরে আপনি ধীরে ধীরে ষ্টেপ নিবেন এবং ওয়েবসাইট ডিজাইন বা ডেভেলপমেন্ট শুরু করবেন। কন্টেন্ট রেডী করবেন। আপনি যদি নিজে ওয়েবসাইট না বানাতে পারেন তাহলে প্রথমেই আপনাকে কন্টেন্ট রেডী করতে হবে। আপনার ওয়েবসাইটের নাম কি হবে তাও ঠিক করতে হবে। কোথা থেকে ডোমেইন কিনবেন + হোস্টিং করাবেন + টেমপ্লেট কিনবেন - এইগুলো যে ওয়েবসাইট ডিজাইন করবে বা ডেভেলপ করবে সেই ঠিক করে নেবে। আপনি শুধু ডোমেইনের নামটা সিলেক্ট করে দেবেন। যেমন : আপনি যে ব্লগপোষ্ট পড়াতছেন এইখানে আমার ৩ টা ডোমেইন একসাথে এড করা: 
  1. http://www.masudbcl.com
  2. http://www.masudbcl.xyz
  3. http://masudbcl.blogspot.com


Blogspot.com এই টা ফ্রি সাব ডোমেইন। এইটা ব্লগের একাউন্ট ওপেন করলে দেয়া হয়। আমি ব্লগার হোষ্টিং ব্যবহার করি। বেসিক্যালি ব্লগার হোষ্টিং পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগতির একটি হোষ্টিং। আপনি এখানে অনায়াসে হোষ্টিং সুবিধা ব্যবহার করে একদম আনলিমিটেড ব্লগার হোস্টিং ফ্যাসিলিটজ ব্যবহার করতে পারবেন। সেজন্য আপনাকে ১ টাকা বা  ১ ডলার ও দিতে হবে না। ব্লগারদের ওয়েব হোষ্টিং সম্পূর্ন ফ্রি। আপনি চাইলে যে কাউকে দিয়ে ব্লগার এ ব্যবহার করে টেমপে।লট ব্যবহার করতে পারেন। আবার বিশ্বে অনেক ফ্রি টেমপ্লেট দেয়া আছে। সেগুলোও ব্যবহার করতে পারেন। ব্লগারের টেমপ্লেট সুবিধাটা আপনি যেখানে পাবেন সেটা হলো: 

ব্লগারের নিজস্ব অনেক থিম আছে যেগলো ব্যবহার করলে সবচেয়ে ভালো হবে। আপনি যদি নিজে হ্যান্ড মেড ব্লগার থিম কাউকে দিয়ে বানান আর সেটা ব্যবহার করতে চান তাহলে সেটাতে বিশ্বের যে কোন দেশের হ্যাকার আক্রমন করতে পারে ডাটা বা তথ্যের জন্য। কিন্তু আপনি যদি ব্লগার কর্তৃক রিকমেন্ডেড থিমগুলো ব্যবহার করেন তাহলে সেগুলো কখনো কোন হ্যাকারদের আক্রমন পাবে না। ব্লগার নিজেই আপনাকে আক্রমন থেকে বাচাবে কারন ব্লগার যে প্রোগ্রামিং বা কোডিং তা গুগল দ্বারা ভেরিফায়েড। আপনি যদি একটি জিমেইল এর মালিক হোন তাহলে আপনি অনেক ফ্রি সুবিধা পাবেন: 
  1. একটি ফ্রি ব্লগস্পট একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন। 
  2. একটি ফ্রি ইউটিউব চ্যানেলের মারিক হতে পারবেন। 
  3. একটি ফ্রি গুগল এডসেন্সের একাউন্টের মালিক হতে পারবেন। 
  4. একটি গুগল এডওয়ার্ডস একাউন্টেরও মালিক হতে পারবেন। 
একটি জিমেইল একাউন্ট ওপেন করতে তো কোন টাকা লাগবে না। ইউটিউব চ্যানেল ওপেন করতেও কোন টাকা লাগে না। বাংলাদেশে এতো পরিমান ছেলে পেলে কাজ শিখেছে যে অনেকেরই হাতের কাজ তারা করে দিয়ে টাকা চায় কারন তারা সেটা করতে পারে। কিন্তু বাংলাদেশের নিজস্ব কোন মার্কেটপ্লেস না থাকাতে সেটা পরিপূর্ন ভাবে ফিলাপ হইতাছে না। যেমন: আজকে একখানে দেখলাম একজন বলতাছে যে সে ইউটিউব চ্যানেল ওপেন করে দেবে। তার হয়তো আইডিয়া নাই যে: যে যে কোন শিক্ষিত মানুষ ই ইউটিউব একাউন্ট ওপেন করতে পারবে। কারন এইটা একটা নেক্সট এবং ইয়েস এর মেথড। তারে হয়তো কোন ফটকাবাজ কাজ শিখাইছে যার কারনে সে কো উপায় না পেয়ে তার টাকা বা ইনভেস্ট রিকভারি করার জন্য এই ধরনের কাজের অফার দিয়ে বেড়াইতাছে ফেসবুকে। 

পৃথিবীতে অনেক ভালো ভালো হোষ্টিং কোম্পানী হোষ্টিং এর অফার দিয়ে থাকে। যেমন আছে; ব্ল হোষ্ট। 


এইখান থেকেও আপনি হোস্টিং কিনতে পারবেন। তবে আমার মতে ব্লগার ডট কম হোস্টিং ফ্যাসিলিটজ ব্যবহার করা ভালো কারন এইটা আনলিমিটেড। আর নয়তো অন্য কোন টা থেকে হোষ্টিং নিলে আপনাকে প্রতিবছর বছর পেমেন্ট দিতে হবে।  হোস্টিং এবং ডোমেইন প্রতিবছরের জন্য পেমেন্ট দিতে হয়। ডোমেইন কেনার জন্য সবচেয়ে ভালো ওয়েবসাইট এর নাম : নেইমচিপ। 

ওয়েবসাইট ডোমেইন এবং হোস্টিং সিলেক্ট করার পরে আপনার সামেন প্রথম কাজ হইতাছে : ওয়েবসাইটের ফুল কন্টেন্ট আগে থেকে রেডী করে নেয়া এবং ভালো একজন ওয়েভসাইট ডিজাইনার খুজে বের কার। বর্তমানে প্রচলিত মার্কেটপ্লেসগুলোর ব্যাপারে অনেক অভিযোগ আছে অনেকের। তাই আপনাকে নতুন এবং পৃথিবীর মধ্যে অণ্যতম সেরা একটি মার্কেটপ্লেস এর ব্যাপারে জানাবো: এসইওক্লার্ক মার্কেটপ্লেস। এইখানে আপনি ফ্রি রেজিষ্ট্রেশন করতে পারবেন। ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আপনি চাইলে ণীচের ব্যানারটাও ব্যবহার করতে পারেন। সেখানে ক্লিক করে একজন বায়ার হিসাবে ফ্রি রেজিষ্ট্রেশন করবেন তারপরে আপনি হোম থেকে মার্কেটপ্লেসের সাহায্য নিয়েেআপনার পছন্দনীয় সেলারকে খুজে বের করবেন সারা বিশ্বের তালিকা থেকে। যদি কারোরই সার্ভিস পছন্দ না হয় তাহলে আপনি আপনার বাজেটের মধ্যে একটি জব ক্রিয়েট করবেন। দেখবেন সারা বিশ্বের সকলে সেই জবে আবেদন করবে আর আপনার জণ্য ও পছন্দণীয় সেলার কে দিয়ে কাজ করাতে পারবেন। বাংলা ওয়েবসাইট হলেও সেটা আপনি বিশ্বের যে কোন দেশের ওয়েবসাইট ডিজাইনারকে দিয়ে করাতে পারবেন।  কিভাবে আপনি এসইওক্লার্কে রেজিষ্ট্রেশন করবেন এবং জয়েন করে সারা বিশ্বের যে কোন দেশের যে কোন ফ্রি ল্যান্সার কে হায়ার করতে পারবেন সে ব্যাপারে ণীচে একটা ভিডিও প্লে লিষ্টে পুরোপুরি দেয়া আছে। আপনি যদি আমার দেয়া রেফারেল লিংক বা ব্যানার থেকে রেজিস্ট্রেশন করেন এবং পরে এসইওক্লার্ক থেকে কেনাকাটা করেন তাহলে আপনার কেনাকাটা থেকে আমার ১০% লাভ বা বেনেফিট বা এফিলিয়েট সেলস কমিশন থাকবে এবং আপনার কোন লস হবে না। 
 


SEOClerks

মার্কেটপ্লেসে ব্যবহারে অবশ্যই আপনি রুচির পরিচয় দিবেন। আপনি যদি একজন বায়ার হিসাবে আপনার ক্যারিয়ার শেুরু করতে চান তাহলে অতি অবশ্যই আপনাকে খূব সুন্দর করে প্রোফাইল টা তৈরী করতে হবে। 
  • আপনি অবশ্যই আপনার একটা সুন্দর প্রোফাইল ছবি ব্যবহার করবেন।
  • আপনি অবশ্যই সুন্দর একটা কাভার ফটো দেবেন।
  • আপনি অবশ্যই নিজের ব্যাপারে ২/১ টা কথা লিখবেন। 
  • আপনি অবশ্যই আপনার নিজের সুন্দর একটা ইউজার নেম ব্যবহার করবেন। 
  • আপনি অবশ্যই প্রোফাইলের সব সিকিউরিটি পালন করবেন। মোবাইল ভেরিফিকেশন তো অবশ্যই করতে হবে যেনো একাউন্ট হারিয়ে গেলে তা রিকভার করতে পারেন। 
  • প্রত্যেক টা বাই সেল এর পরে মাষ্ট বি রিভিউ নিয়ে নিবেন বা প্রত্যাশা করবেন। 
  • একজন সেলারও যেনো আপনার কাছ থেকে রিভিউ মিস না করে। 
আমি যদি আপনার উপকার করে থাকি তাহলে আপনি আমার ওয়েবসাইটের এফিলিয়েট ষ্টোর থেকে রেজিষ্ট্রেশন করবেন তাহলে আপনার কাছ থেকে ভবিষ্যতে যখনি আপনি কোন সার্ভিস কিনবেন তখনি আমি ১০% বেনিফিট পাবো, আপনার কোন লস হবে না। কিন্তু আপনি যদি সেল করে থাকেন বা সেলার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার বেনিফিট আপনারই।




No comments:

Post a Comment

Thanks for your comment. After review it will be publish on our website.

#masudbcl

Marketplace English Tutorial. Freelancing.Outsourcing.

ফ্রি ল্যান্সার দের একটি আইডি কার্ড কখন দরকার ছিলো?

আগামীকাল থেকে বাংলাদেশ সরকারের প্রযুক্তি মন্ত্রনালয় দেশের শীর্ষস্থাণীয় ফ্রি ল্যান্সারদের কে ভার্চুয়াল আইডি কার্ড দেবার কথা ঘোষনা করেছে। অনলা...