Translate

Wednesday, October 7, 2020

ক্রেইগলিষ্ট ফ্রি ল্যান্সার বলতে কি বোঝেন?

Craigslist.org  এডাল্ট সেকসানে অনেক ধরনের পন্য কেনা বেচা হতো বা দেহ ব্যবসা রিলেটেড বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা  হতো  । কয়েকদিন আগে আমেরিকার কংগ্রেসে এই টাইপের একটা বিল উথ্থাপন থেকে সেই ক্লাসিফায়েড ওয়েবসাইটে পারসোনাল/রোমান্স সেকসান টা বাতিল করে দিয়েছে। কিন্তু সেটা তো আমেরিকার জন্য। বাংলাদেশের যারা এক্সপার্ট তারা প্রক্সি সফটওয়্যার ব্যবহার করে সেই ওয়েবসাইটে ঢুকে এবং ওয়ান টাইম ফোন নাম্বার কিনে সেখানে এড পোষ্ট দিতে পারতো এবং আরো  অন্যান্য সেকসানেও । Craigslist.org খুব পপুলার সেকসান যেগুলো বাংলাদেশ থেকে ফ্রি ল্যান্সাররা ব্যবহার/পোষ্ট করতো: 

  • Plot for sell. 
  • Plott for rent.
  • Flat for sell.
  • Flat for rent.
  • Jobs
  • Small Business
  • Trade section
  • Services
ত্রেইগ লিষ্ট আগে থেকে তাদের ক্লায়েন্টের ফ্যাসিলিটজ অনুযায়ী বিভিন্ন দেশ থেকে ফ্রিল্যান্সার দেরকে প্রক্সি আইপি সফটওয়্যার ব্যবহার করে এবং প্রত্যেকটা একাউন্টের জন্য একটি  আমেরিকান ফোন নাম্বার দ্বারা ভেরিফাই করে এড পোষ্ট করার সুযোগ দিতো। আমি উপরের সবগুলো সেকসানে কাজ করেছি কিন্তু কখনোই পারসোনাল বা রোমান্স সেকসানে কাজ করি নাই মানে দেহ ব্যবসা বা এডাল্ট সেক্স রিলেটেড ওয়েবসাইটে কাজ করি নাই মানে কোন এড কখনো পোষ্ট করি নাই। প্রচুর পরিমানে টেকনিক ব্যবহার করে পোষ্টিং লাইভ রাখতে হতো- লিড সংগ্রহ করতে হতো এবং সেগুলোতে সিপিএ অফার প্রমোটিং করতে হতো। এই অংশটুকু আরেকটা পোষ্টিং এর মাধ্যমে ক্লিয়ার করবো: পোষ্টিং লাইভ রাখতে হতো- লিড সংগ্রহ করতে হতো এবং সেগুলোতে সিপিএ অফার প্রমোটিং করতে হতো  আমরা যারা মার্কেটপ্লেস (Odesk or Elance) থেকে ক্রেইগলিষ্টে কাজ করতাম সেখানে ক্লায়েন্টরা প্রথমে মার্কেটপ্লেসে জব বোর্ডে এড পোষ্টিং করতো। সেখানে সারা বিশ্ব থেকে ফ্রি ল্যান্সাররা বিড করতো। তারপরে সেখান থেকে ক্লায়েন্ট একজনকে চয়েজ করতো। তারপরে এড ডিটেইলস দিতেন সব প্রাইজ ফিক্সড হবার পরে। অনেক সময় ক্লায়েন্টরা নিজেরাই প্রক্সি আইপি সফটওয়্যার এবং ফোন নাম্বার ভেরিফায়েড ক্রেইগলিষ্ট একাউন্ট দিয়ে দিতো। আমি যে সকল সেকসানে কাজ করেছি সেগুলো অনেকটা সহজ ছিলো (Small Business/Flat for rent/Plot for rent etc)    - খুব বেশী ঝামেলা করতো না। ২০১০/১১ সালের আগে আইপি ধরে মোটামুটি পোষ্টিং দিলেই লাইভ হতো। আর লাইভ হইলে সেখানে ক্লায়েন্টের দেয়া ফোন নাম্বার, ইমেইল এড্রেস দেয়া থাকতো সেখানে কল দিতো বা ইমেইল করতো। যখন ক্লায়েন্ট ব্যবসায়িক সেলস পাইতো সেটাকে লিডস বলা হতো। ক্রেইগলিষ্টে যে পোষ্টিং গুলো লাইভ হতো বা লাইভ থাকতো সেগুলোকে কালেকশন করে ওডেস্কে বো যে কোন মার্কেটপ্লেস ম্যাসেজ আকারে ক্লায়েন্ট কে দিতে হতো প্রতিদিন যেটাকে লাইভ পোষ্টিং লিংক বলা হতো। আমার লাইফে আমি কোন এডাল্ট পোষ্টিং রিলেটেড কাজ পাই নাই ক্রেইগলিষ্টের জন্য। 

কিন্তু যারা এডাল্ট ডেটিং বা এফিলিয়েট মার্কেটিং করতো তারা নানা ভাবে বিভিন্ন উপায়ে নিজেরা আই পি সফটওয়্যার কিনে বা ফোন নাম্বার কিনে আমেরিকাতে বা ইউরোপে  বিভিন্ন অংগরাজ্যে এডাল্ট ডেটিং রিলেটেড পোষ্টিং দিতো সারা রাত ভর। সারা রাত জেগে বাংলাদেশের ছেলে মেয়েরা কাজ করতো।  এডাল্ট  পোষ্টিং  লাইভ হলে সেটাতে রিপ্লাই আসতো। বেসিকালি ফোন নাম্বার এবং ইমেইল এড্রেস। পরে সেগুলো কালেকশন করে সেগুলোতে অফার সেন্ড করা হতো। অফার সেন্ড করার পরে যখন সেগুলোতে পোষ্টিং ক্লায়েন্টরা সাইন আপ করে থাকে তখণ সেখানে ডলার জেনারেট হয়।  সেই ডলার টা আপনার অফার লিংকে আইসা দেখাবে। এইভাবে একটি নির্দিষ্ট এমাউন্ট হবার পরে আপনি সেটা বাংলাদেশের প্রাইভেট ব্যাংকে রেমিটেন্স আকারে নিয়ে আসতে পারবেন। যেমন: যে কোম্পানীর অফার আপনি প্রমোট  করতাছেন- যেমন ধরেন ম্যাক্স বাউন্টি  থেকে একটি অফার নিয়ে আপনি ক্রেইগলিষ্টে র লিডে প্রমোট করে আপনি ম্যাক্স  বাউন্টিতে বড় আকারের ডলার জেনারেট করলেন আর ম্যাক্স বাউন্টির সাথে বাংলাদেশের রেমিটেন্স এর যোগাযোগ আছে এবং সেখানে আপনি উইথড্র করে নিয়ে আসলেন- তাহলে কি আপনি তাকে খারাপ ফ্রি ল্যান্সার বলবেন? কক্ষনোই না- কারন আপনার দেশের ব্যাংকে তার উপার্জন রেমিটেন্স আকারে ঢুকাতছে। আর আমরা তো বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস থেকে অর্ডার পেয়ে সেই কাজ গুলো ক্রেইগলিষ্টে পোষ্ট করেছি আর ক্লায়েন্টকে পোষ্টিং লাইভ লিংক দিয়েছি। তার বিনিময়ে ক্লায়েন্ট ওডেস্কে বা ইল্যান্সে পেমেন্ট দিছে- সেটাকে আমরা বাংলাদেশের প্রাইভেট ব্যাংকে সুইফট আকারে   ্এড করে  রেমিটেন্স হিসাবে খরচ করেছি এবং এটিএম থেকে উইথড্র করে  ক্যাশ আউট করে খরচ করে ফেলাইছি। এজ এ ওয়ার্ড রেমিটেন্স খাইয়া বাথরুম কইরা ক্লিয়ার কইরা ফালাইছি। 

এখণ আপনি যদি ওডেস্ক বা ইল্যান্স কে বাংলাদেশ থেকে অফ করে দেন বা সেই সাথে ক্রেইগলিষ্টে কেও বাংলাদেশ থেকে অফ করে দেন তাহলে কি সরকারের রেমিটেন্স এর খাতা থেকে কারো নাম কাটা যাবে যারা ওডেস্ক বা ইল্যান্সে কাজ করেছে রেমিটেন্স এনেছে তা ক্রেইগলিষ্ট এ বিভিন্ন কোম্পানীর অফার প্রমোট করে সেখান থেকে রেমিটেন্স এনছেন। যেটাকে ওডেস্ক বা ইল্যান্স বৈধ আকারে এক্সপ্ট করেছে বা বিভিন্ন কোম্পানী বৈধ আকারে এক্সপ্ট করেছে সেটা লিগ্যালই। সকলেই তো দেখেছি ওডেস্ক এবং ইল্যান্স ডোমেইন রিডাইরেক্ট হইতাছে বাংলাদেশে। তাহলে কি কোম্পানী আজো কোথাও না কোথাও টিকে আছে ( প্রাইভেট আকারে)।টিকে থাকুক বা না থাকুক ওডেস্ক বা  ইল্যান্স ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংকের সাথে কানেক্টেড থেকে তাদের নিজস্ব একাউন্ট থেকে সেখানে ডলার জমা করে ইউরোপ বা আমেরিকার ব্যাংক থেকে বাংলাদেশের ব্যাংক বা  প্রাইভেট ব্যাংকে সেন্ড করেছে যারা কোম্পানীর মালিক তারা । রেমিটেন্স একটা বিষয় যা সম্পূর্ন   বৈদিশিক  মানির উপরে ভিত্তি করে তৈরী হয়। ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে রিলেটেড কোম্পানী যারা আমেরিকান বা ইউরোপিয়ান কান্ট্রি গুলোতে- তারা যখন বাংলাদেশী ফ্রি ল্যান্সার দের কষ্টার্জিত উপার্জনের টাকা কে একসাথে করে বাংলাদেশে রেমিটেন্স হিসাবে সেন্ড করেছে সেটা আন্তর্জাতিক অংগনে বাংলাদেশের রেমিটেন্স উপার্জন হিসাবে এড হয়েছে। আর ট্রানজেকশন নাম্বার ঘাটলে সব তথ্যই  তারা যে কোন সময় ই জানতে পারবে। যেমন: বাংলাদেশ ব্যাংকের যে রেমিটেন্সের ডাটাবেজ সেখানে যদি যে কেউ যে কোন একটা ট্রনাজেকশান নাম্বার  লিখে সার্চ করেন তাহলে আপনি কি রেমিটেন্স এনেছেন, কোন খান থেকে এনেছেন বা কোন দেশ থেকে এনেছেন এগুলো অনেক কিছুই জানতে পারবেন। যেখানে রেমিটেন্স একবার ইস্যু হয়েছে সেখানে আপনার বাংলাদশের জন্য এইটা সারা জীবনের রেকর্ড। তারপরেও যদি কেউ কনফিউশনে থাকেন তাহলে কমেন্টে জানাবেন- রিপ্লাই দিবো। আমি ডিটেইলস ক্লিয়ার করে দেবো। এই পদ্বতিতে যারা ২০১১ সালের আগে বা পরে রেমিটেন্স এনেছেন তাদের সবার নামই বাংলাদেশ সরকারের কাছে তালিকাবদ্ধ আছে। আর যারা ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে রিলেটেড কোম্পানীর কাছ থেকে রেমিটেন্স উপার্জন করেছে তাদেরকেই বাংলাদেশ সরকারের তালিকাবদ্ধ ফ্রি ল্যান্সার বলা হবে। দেখতে হবে এখন যে সকল কোম্পানী থেকে রেমিটেন্স আসতাছে সেগুলো আন্তর্জাতিক ভাবে ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে রিলেটেড কোম্পানী হিসাবে তালিকাভুক্ত  আছে কিনা?  ইন্টারনেট যারা কন্ট্রোল করে আমেরিকান সরকারের আইকান (ICANN) - বা সেই সরকারের কাছে প্রকৃত তালিকাটা পাওয়া যাবে কারন এইখানে ডলার লেনাদেনা করা হয়- সো ডলারের জগতই জানে যে- কারা কারা তাদের তালিকাগ্রস্থ ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং কোম্পানী বা পাইওনয়িারের মতো কোম্পানীও বলতে পারবে যারা সবসময় রেমিটেন্স নিয়ে কাজ করে। 



(চলবে)

No comments:

Post a Comment

Thanks for your comment. After review it will be publish on our website.

#masudbcl

Marketplace English Tutorial. Freelancing.Outsourcing.

Vote for Trump. Vote for Pence. Vote for Trump Pence. Vote for ARPP. Vote for 2020-2024

  https://t.co/gsFSghkmdM pic.twitter.com/ao85KjMeBW — Donald J. Trump (@realDonaldTrump) October 27, 2020 Vote from: http://www.vote.dona...