Translate

Saturday, October 17, 2020

ফ্রি ল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে অর্ডার বলতে কি বোঝেন?


ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে অর্ডার বলতে নতুন কাজ পাওয়াকে বোঝানো হয়। আপনি যদি নতুন কাজ পান যে কোন সময়ে তাহলে সেটাকে ফ্রি ল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং  অর্ডার বলা হয়। এইটা ফ্রি ল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং ওয়ার্কারদের ভাষা। এখন আপনি যদি ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং ওয়ার্কার হোন আর প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কাজের অর্ডার পান আর আপনার সাথে যদি এমন কোন লোক বা শক্তি থাকে যাদের বিরুদ্বে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবার জন্য প্রতিমূহুর্তে অর্ডার কার্যকর করার জন্য পুলিশের উপরে প্রেশার আছে- আর পুলিশ যদি সেই আসামীকে খুজে বেড়ায় ফাসির অর্ডার কার্যকর করার জন্য, আর সে যদি আপনার কাছ থেকে প্রতিমূহুর্তে অর্ডার অর্ডার শোনে- তাহলে কি অবস্থা হতে পারে? 




যদি এরকম কোন সিচুয়েশন হয় আর আপনি সেই ফাসির আসামীকে বার বার ই বলেন যে ভাই ফ্রি ল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং এর জগতে অর্ডার বলতে নতুন কাজ নতুন ডলার বা নতুন পজিটিভ রিভিউ বা এরকম আরো অনেক কিছু বোঝানো হয় আর তারপরেও যদি সে বলে যে সে ফাসির আসামী তাহলে কি রকম হতে পারে? আসলে অর্ডার শব্দটা শুনলে বাংলাদেশে কেউ না কেউ ভয় পায় তাহলে বুঝতে হবে সে কোন না কোন মামলা/হত্যামামলা/চাদাবাজি মামলা/দেশবিরোধী কোন কার্যকলাপের সাথে জড়িত আছে বা যে কোন ধরনের বড় সড় মামলার আসামী যেখানে তার রায় কার্যকর করা হবে। অনেকটা মজা করে কথাটা বললাম। আমাদের ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং এর জগতে অর্ডার বলতে যে কাজ বোঝানো হয় সেটা আমি উপরের ছবি থেকে বুঝাইয়া দিলাম। আমার এই ৫৫০ অর্ডার লিষ্ট যদি আপনি পরীক্ষা করেন বা একটি এক্সল শীট বানান তাহলে আমি নিশ্চিত আপনার ৫-১০ দিন সময় লাগবে কারন বিষয়গুলো অনেক ভাষ্ট (অর্ডার নম্বর, টাইটেল, বায়ারের ইউজারনেম, বায়ারের দেশ, ডেট এবং টাইম, কতো ডলার, রিভিউ, রিকমেনডশন এগুলোকে এক সাথে লিপিবদ্ব করাকে ভাষ্ট বললাম।) লুকোচুরি করে মার্কেটপ্লেস থেকে  বাংলাদেশের ভেতরেই থেকে একজন আরেকজনকে কাজ দিলাম ব্যাপারটা সেরকম না- প্রত্যেকটা অর্ডার সারা বিশ্বের সকল ফ্রি ল্যান্সারদের সাথে বিড করে জিতে আনতে হয়েছে বা সারা বিশ্বের যে কোন দেশের বায়ারের কাছে অর্ডার সেল করতে হয়েছে) আমি বাংলাদেশী কোন বায়ারের সাথে কোন কাজ করি নাই আগে। রিসেন্টলি আমার ৫ ডলারের অফারের আওতায় আমি অনেক বাংলাদেশী ফ্রি ল্যান্সার দের কাছে সার্ভিস সেল করেছি ২০-২৫ টা এবং তাদেরকে ফ্রি বায়ার প্রোফাইল ও মেক করে দিয়েছি। কিন্তু এর আগে প্রত্যেকটা অর্ডার আমাকে অনেক সুচারুভাবে কমপ্লিট করতে হয়েছে এবং আবার একমাত্র টার্গেট ছিলো যে কাজ কম করি বা ডলার কম পাই তাতে আফসোস নাই কিন্তু আমাকে যেনো কেউ  খারাপ রিভিউ না দেয়। আমি আরো একটা  জিনিস খুব ভালো করে মেইনটেইন করেছি - আমি কখনোই কাউকেই আমার এসইওক্লার্ক প্রোফাইল লগইন করতে দেই নাই এবং কেউ কখনোই আমার প্রোফাইলে ঢুকে কোন কাজ করতে পারে নাই, আমি অন্য কাউকে দিয়ে কখনো আমার প্রোফাইলে কাজ করাই নাই এবং কাউকে দিয়েও আমার কোন কাজ সাবমিট করাই নাই। সব কাজের অফার আমি নিজে রিসিভ করেছি, সব কাজ আমি নিজে বিড করে জিতে এনেছি, সব কাজ আমি নিজে ডিল করেছি এবং সব কাজ আমি নিজে সাবমিশন করেছি । যদি কেউ কাজ নেবার জন্য খুব বেশী জোড়াজুড়ি করেছে (কয়েকজন ছিলো যাদের কে দিয়ে মার্কেটপ্লেসের বাহিরে পারসোনাল ক্লায়েন্টের কাজ করাতাম - ফেসবুক ফ্রেন্ডস বা স্কাইপে ফ্রেন্ডস বেশীর ভাগ) তখণ তাকে বা তাদেরকে আমার টোটাল কাজের ১০০% বুঝিয়ে দিয়েছি এবং একদম ১০০% নিখুত ভাবে বায়ায়কে কাজ বুঝিয়ে দিয়েছি তবে এরকম কেস ১০-১৫ টা পুরো ৫৫০ টা অর্ডারের মধ্যে আর ১০০ ভাগ টাইমেই (যদি আমি অন্য কাউকে দিয়ে কাজ করিয়ে থাকি ইন কেস) তাহলে আমি আমার বায়ারকে নোট দিয়ে ইনফর্ম করেছি যে- আমি আমার পরিচিত কাউকে বা টিম মেম্বার কাউকে দিয়ে করিয়েছি। যারা আগে কাষ্টমার কেয়ারে ছিলো তাদেরকেও ইনফর্ম করেছি যে আমি আমার কাজ বাহিরের ২/৩ জনকে দিয়ে করাতে পারবো কিনা- বলেছে পারবো তবে প্রোফাইল এক্সস যেনো কাউকে না দেই। তাই পালন করেছি। আর বায়াররা ও বলেছে - একুরেটলি কাজ ডেলিভারি দেয়াটাই বড় ব্যাপার। তুমি নিজে করো বা যাকে দিয়ে করাও। একসাথে অনেক কাজের প্রেশার থাকলে ২/৩ টা কাজ বাহিরের কাউকে দিয়ে করিয়ে নিয়েছি- একদম এ টু জেড কাজ দেখিয়ে দিয়েছি এবং কাজ আদায় করে নিয়েছি এবং ৪০% এর মতো কাজের টোটাল পেমেন্ট ও দিয়েছি। আমার প্রোফাইলে আসা ২/৩ টা কাজ বা ম্যাক্সিমাম ১০/১৫ টা কাজ যদি কাউকে দিয়ে আমি করাই এবং আমি নিজেই ফুল কাজ দেখাইয়া দেই আবার আমি ও যদি তাকে ৪০-৫০% পেমেন্ট ও দেই। একজন ওয়ার্কার যদি জোড় করে একজন ফ্রি ল্যান্সারের কিছু কাজ করে দেয় তাতে  কি সেই ফ্রিল্যান্সারের প্রোফাইল আরেকজনের হয়ে যাবে? কখনোই না। যার যার প্রোফাইল তার তার। ফ্রি ল্যান্সারদের কাজ ই তো বিড করে কাজ জেতা আর ১০/১২ জনকে দিয়ে কাজ করানো। আমার এসইওক্লার্ক প্রোফাইল টা আমার সম্পদ। এইখানে অন্য কারো কোন ভাগ নাই বা শেয়ার ও নাই। আমার প্রত্যেকটা রিভিউ অনেক কেয়ারফুলি আদায় করতে হয়েছে। টোটাল ৫৫০ অর্ডারের মধ্যে ৫৩০-৫৩৫ টা কাজই আমার নিজের করা ১০০%। ৫৫০ এর মধ্যে পজিটিভ রিভিউ ও আছে ২৯৯ টা। শুকরিয়া। প্রোফাইল বলতে ফ্রি ল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং ওয়ার্কার ওয়েবসাইট ইউজার নেম প্রোফাইল ওয়েবসাইট লিংক কে বোঝানো হয়। 







যতো ধরনের প্রফেশনাল স রা কাজ করতে পারবে এখানে। আমি ধারনা করি আনুমানিক ১৫ লক্ষ সেলার আছে এইখানে। আপনিও হয়ে যান একজন সাকসসেফুল সেলার। এক টাকা বা এক ডলারও খরচ লাগবে না। 




এখন আমি ম্যাক্সিমাম টাইম এফিলিয়েট মার্কেটিং করি। এসইওক্লার্ক রিলেটেড সার্ভিসকে প্রমোট করি সারা বিশ্বে। আপনি যদি চান তাহলে আপনি আমার রেফারেল ব্যানার থেকে জয়েন করতে পারেন। আপনার একাউন্টে ৫ ডলারের একটা কুপন  কোড এড করবেন যদি আপনি কোন এসইও সার্ভিস কিনতে চান এবং আপনি আমার প্রোফাইল ভিজিট করে যে কোন একটা ৫ ডলারের কাজের অর্ডার দিতে পারেন। আপনি প্রথমেই একজন নিশ্চিত ফ্রি বায়ার হিসাবে কাজ শুরু করতে পারবেন। SEOClerks তবে এই অফার শুধু মাত্র তাদের জন্য যারা সারা জীবন ফ্রি ল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে কাজ করবে কারন ওয়েবসাইট বা মার্কেটপ্লেস এ যেনো সে বায়ার হয়ে উঠে- আর ভবিষ্যতে আপনি আপনার নিজের প্রয়োজনে বা দেশ বা দশের প্রয়োজনে যতো পরিমান এসইও সার্ভিস কিনবেন সেখান থেকে আমি ১০% বেনিফিট পাবো। জানেন তো এইওক্লার্ক  পৃথিবীর সবচেয়ে বড় এসইওষ্টোর।   আপনার কোন লস হবে না কারন এসইওক্লার্ক ২০% সারচার্জ কাটে প্রত্যেকটা অর্ডার থেকে। 

সম্পূর্ন ফ্রি বাংলা টিউটোরিয়াল। এইওক্লার্ক মার্কেটপ্লেস। ১ টাকাও লাগবে না ১ ডলারও খরচ করতে হয় না এইখানে রেজিষ্ট্রেশন করতে। বিড করতে কোন টাকা বা ডলার লাগে না। একবার রেজিষ্ট্রেশন করে ৮টি মার্কেটপ্লেসের সদস্য হতে পারবেন। নামে এসইওক্লার্ক হলেও আপনি যে কোন প্রফেশন নিয়ে কাজ করতে পারবেন। 





No comments:

Post a Comment

Thanks for your comment. After review it will be publish on our website.

#masudbcl

Marketplace English Tutorial. Freelancing.Outsourcing.

ফ্রিল্যান্সার/মার্কেটপ্লেস/আউটসোর্সিং জগতে পজিটিভ থাম্ব বলতে কি বোঝেন?

ইন্টারনেটে এখন অনেক খানে পজিটিভ থাম্বের ব্যবহার আছে। যে কোন পোষ্টের নীচে অনেক সময় থাম্ব ব্যাপারটা দেখা যায়। আবার অনেকখানে অনেক ওয়েবসাইটে আছে...